কেন আপনার চশমাটি দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়?

নিয়মিত চশমা ব্যবহার করেন যারা, তাদের একটি কমন অভিযোগ হচ্ছে- কিছু দিন পরে চশমা নষ্ট হয়ে যায়। সেক্ষেত্রে আপনাকেও সচেতন হওয়া জরুরি। আপনি প্রতিনিয়ত যে জিনিসটি ব্যবহার করছেন তার প্রতি যত্নশীল না হলে সেটি বেশি দিন ভালো থাকবে না এটাই স্বাভাবিক। চশমার ক্ষেত্রেও ছোট ছোট কিছু ভুলের কারণে অল্প দিন ব্যবহার করা শর্তেও চশমায় দাগ পড়ে, চশমা ভেঙে যায় বা চশমার ফ্রেম বাঁকা হয়ে যায়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, যেসব কারণে চশমা সম্পর্কিত সমস্যাগুলো দেখা দেয়।

মাথার ওপরে চশমা না পরা

যারা নিয়মিত চশমা ব্যবহার করেন তাদেরকে মাঝে মধ্যেই মাথার উপরে চশমা পরার প্রবণতা দেখা যায়। চোখ চুলকানোর জন্য চশমা ঠেলে মাথার উপরে তুলে দেন তারা। আবার যারা সানগ্লাস ব্যবহার করেন অনেক সময় তারা স্টাইলের জন্য চশমা মাথার উপরে পড়ে। যার ফলে চশমার ফ্রেম ঢিলা হয়ে যায়। এক্ষেত্রে আরেকটি সমস্যা হয়, তা হলো মাথার তেল চশমার লেন্সে লাগলে সহজে দূর হয় না। এছাড়া মাথা থেকে চশমা পড়ে লেন্সে দাগ লাগতে পারে, এমনকী ভেঙে যেতে পারে।

চশমা খোলার সময় দুই হাতের ব্যবহার

সবাই এই ভুলটা করে থাকেন। অনেকেই চশমা খোলার সময় একট হাত ব্যবহার করেন। এতে চশমার এক পাশে চাপ পড়ে এবং একদিকে ফ্রেম বেশি বাঁকা হয়ে যায়। এই সমস্যার থেকে রক্ষা পেতে যখনই চশমা খোলার প্রয়োজন হবে, তখনই দুই হাতের সাহায্যে চশমার দুই পাশ ধরে খুলতে হবে।

লেন্স পরিষ্কার করা

চশমার গ্লাস বা লেন্স পরিষ্কার করার জন্য সব সময় অ্যামোনিয়া ও অ্যালকোহলভিত্তিক পরিষ্কারক উপাদান এড়িয়ে চলুন। চশমার গ্লাস বা লেন্স পরিষ্কারের ক্ষেত্রে পানি ও ডিশ সোপের মিশ্রণ ভালো কাজ করে। পরিষ্কার করার পর শুকানোর জন্য অবশ্যই মাইক্রোফাইবার কাপড় ব্যবহার করতে হবে। তোয়ালে, টিস্যু বা অন্য তন্তুর কাপড় ব্যবহার করলেই চশমার লেন্সে স্ক্র্যাচ পড়ে যায়।

সঠিকভাবে চশমা না রাখা

চশমা কোথাও রাখার ক্ষেত্রে অনেকেই সঠিকভাবে রাখেন না। চশমা উল্টো ভাবে রাখা হয়। অর্থাৎ চশমার লেন্স টেবিলের দিকে রাখা। যার ফলে সহজেই চশমার লেন্সে স্ক্র্যাচ পরে যায়। চশমা বক্সে রাখার ক্ষেত্রেও কোনোভাবেই এই ভুলটি করা যাবে না। যেখানেই হোক না কেন, চশমা রাখার ক্ষেত্রে লেন্সের অংশটি উপরের দিকে রাখতে হবে।

চশমা গরম স্থান থেকে দূরে রাখা

সাধারণ চশমা বা সানগ্লাস ব্যবহারের সময় খেয়াল রাখতে হবে, গরম ও অতিরিক্ত আলোযুক্ত স্থানে যেন রাখা না হয়। এতে করে চশমার ফ্রেমের আকৃতি বিকৃত হয়ে যায় এবং চশমার রঙ নষ্ট হয়ে যায়। এতে যেকোনো সময় হঠাৎ করে চশমা ভেঙে যায়

0/5 (0 Reviews)
Spread the love

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    ×





    X